2 Replies to “আপনার আশেপাশে বেড়ানোর জায়গার বিবরণ …..”

  1. পাঞ্চেত ড্যামঃ পুরুলিয়ার নিতুরিয়া ব্লকে বাংলা -ঝারখন্ড বর্ডার এ পাঞ্চেত ডাম। পুরুলিয়া-রঘুনাথপুর- সরবড়ি রোডে সরবড়ি মোড় থাক্যে বাঁ সাইডে পাঞ্চেত রোড দিয়ে ১১ কিমি গেলেই পাঞ্চেত ড্যাম। জলাধারের প্রাচিরট প্রায় ৪ কিমি বিস্তৃত যেট ব্রিজও বটে ও মাঝখান থেক্যে ভালই উঁচু। ড্যামের ওপর থাক্যে দেখলে একদিকে দামোদর নদের জলাধার দিগন্ত অব্দি আর অন্যপাশে জলবিদ্যুৎ প্রকল্প। পাশে পিকনিক স্পট। শিতকালে পিকনিকের সিজিনে এইট সোন্দর্যায়ন করা হয় ফুলের গাছ লাগাই। তবে রক্ষনাবেক্ষনের অভাবে বাচ্চাদের খেলার পার্ক উপকরণ নষ্ট হয়ে থাকে অনেক সময়। আশেপাশে লজ গেস্ট হাউস আছে। ব্রিজের উপর থাক্যে পাঞ্চেত পাহাড় সামনে দেখা যায়। আশেপাশে নানারকমের গাছপালার বন। পলাশের ফুল ফোটার সময় আরও ভালো দৃশ্য দেখায়।
    ড্যাম থাক্যে যখন পুরা জল ছাড়া হয় তখন ওপর থাক্যে দেখত্যে অ্যাডভেঞ্চার অনুভব করত্যে পারেন বা যদি নিচে যায়ে সামনে থাক্যে দেখেন। পারমিশন নিয়ে যাবেন। গ্রাম্য রাস্তা দিয়েও ড্যামের সামনে যাতে পারেন। তবে সাবধানে যাবেন শ্যাওলাপুর্ন নদীর পাথরে।ড্যামের অপরপাশে নৌকাতে আপনি চাপতে পারেন।
    একটু দূরে স্ন্যাক পার্ক আছে। সেইখানে বিভিন্ন প্রকার কিছু সাপ রাখা আছে ও কিছু পাখি ও অন্য্যান্ন ছোট প্রানি দেখতে পাবেন।
    ওয়েব সাইটের হোম পেজে যাত্যে এ ক্লিক করুন

  2. পুরুলিয়া – রাঘুনাথপুর- পারবেলিয়া-বরাকর রোডে পুরুলিয়া-বর্ধ্মান বর্ডারে একদিকে পারবেলিয়া ও অন্যদিকে ডিসেরগড় ঘাট । এইখ্যানে ছিন্নমস্তা কালী মায়ের মন্দির। এইখ্যানে দূরদূরান্ত থাক্যে মানুষ পুজো দিতেন আসেন মনস্কামনা পুর্ন করতে। এইখ্যানে পীর মেলা হয় স্বরস্বতি পুজোর পরে। খিচুড়ি খাওয়ানো হয় । মেলা বেশ কয়েকদিন চলে।
    ওয়েব সাইটের হোম পেজে যাত্যে এ ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.